শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৫৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম:
কুমিল্লার দেবিদ্বারে ধান ক্ষেতে যুবকের লাশ! সম্মেলনের এক বছর পর কুমিল্লা (উঃ) জেলা আওয়ামীলীগের পুর্নাঙ্গ কমিটির অনুমোদন ৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করলো স্কুল কমিটির সভাপতি! ম্যারাডোনার সম্পদ নিয়ে স্ত্রী-বান্ধবীদের দ্বন্দ্ব শুরু মাস্ক না পরলেই জরিমানা ৫০০,অবস্থার পরিবর্তন না হলে হতে পারে জেল ইসি ঘোষিত ২৫ পৌর নির্বাচনেও অংশ নেবে বিএনপি-২৩টিতে প্রার্থী চুরান্ত করোনাভাইরাসের ৩ কোটি ভ্যাকসিন বিনামূল্যে দেবে সরকার ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে দেশে আসছে বড় ধরনের শৈত্যপ্রবাহ ৯৯৯-এর জরুরি সেবা আরও ত্বরান্বিত করতে বগুড়া জেলা পুলিশে সংযোজন হলো নতুন তিনটি গাড়ি দুই শিশুকে বলাৎকার: ২ মাদরাসা শিক্ষক গ্রেপ্তার
দেবিদ্বারে ৫ টাকার জিবি বেড়ে ৮০ টাকা,সিএনজি চালকদের প্রতিবাদ।

দেবিদ্বারে ৫ টাকার জিবি বেড়ে ৮০ টাকা,সিএনজি চালকদের প্রতিবাদ।

সাহিদ ইসলামঃ

দেবিদ্বার উপজেলার জাফরগঞ্জ ইউনিয়নের কালিকাপুর, ফতেহাবাদ টু এগারগ্রাম সড়কে হঠাৎ করেই নির্ধারিত ৫ টাকার বিপরিতে (৮০)টাকা জিবি আদায়ের প্রতিবাদে সিএনজি ও ইজিবাইক চলাচল বন্ধ করে মানববন্ধন করেছে প্রতিবাদকারী চালকরা। এর কারনে এই রোডে সাময়িক গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকায় ভোগান্তিতে পরেছে সাধারণ যাত্রীরা।
এবিষয়ে সরোজমিনে গিয়ে জানা যায়,আগে কালিকাপুর হতে এগারগ্রাম ভায়া ফতেহাবাদ রোডে কালিকাপুরে লাইনম্যানের জন্য মাত্র ৫ টাকা জিবি তোলা হত। কিন্ত বর্তমানে কালিকাপুরে ৩০,ফতেহাবাদে ৩০ এবং এগারগ্রামে ২০ টাকা মোট দৈনিক ৮০ টাকা জিবি আদায় করা হচ্ছে এবং এর বিপরিতে বলা হচ্ছে নতুন করে এগুলি উপজেলা প্রশাসন ইজারা দিয়েছে তাই এই ইজারা নেওয়া হচ্ছে।
এ ব্যাপারে এই রোডের চালকদের দাবি হল, বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে এমনিতেই আমরা যাত্রী পরিবহনে স্বাস্থ্য বিধিনিষেধ মানতে হচ্ছে,অন্যদিকে রোডের ভাঙ্গাচোরা বেহাল অবস্থায় যাত্রীও কম। আর এই সময়ে যদি এই অতিরিক্ত জিবির বোঝা আমাদের উপর চাপিয়ে দেওয়া হয় তবে আমরা প্রায় ২০০ চালক পরিবার পথে বসা ছাড়া আর কিছুই করার থাকবে না। তাই আমরা বর্তমান পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত এই বর্ধিত জিবি আদায় বন্ধ করার জন্য মানববন্ধন ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছি। আমাদের দাবি মানা না হলে আমরা আরো কঠোর আন্দোলন যেমন লাগাতার গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া ও অনশনের মত কর্মসূচি নিতে পারি।
এই বিষয়ে ফতেহাবাদ ষ্ট্যান্ডের ইজারাদার ফকরুল ইসলাম খন্দকার জানান,প্রথমে ত্রিশ টাকা করা হলেও এখন প্রতিটিতে ২০ টাকা করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে আমরা যেহেতু সরকারিভাবে নিয়ম মেনে ইজারার টাকা এবং সাথে ভ্যাট-ট্যাক্স দিয়ে এসেছি সেহেতু আমাদের টাকা তুলতে আমরা জিবি নিতেই হবে। এখন সরকারি কোন সিদ্ধান্ত হলে অবশ্যই আমরা তা মেনে নেব,এবং প্রয়োজনে আমরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের সাথে বসে আলাপ আলোচনা করে একটি শান্তিপূর্ণ সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারব বলে মনে করছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে সোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সকল সত্ব : সকালের বাংলাদেশ কতৃক সংরক্ষিত । 
Desing & Developed BY:মাহফুজ মিডিয়া লিমিটেড -01846-764625